ব্রাহ্মণবাড়িয়া.প্রেস: নিজস্ব প্রতিবেদক।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন, বীমা কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন দুলাল।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পায়ে হেঁটে পার হচ্ছিলেন রেল সেতু। আচমকাই দেখেন পেছন দিক থেকে ট্রেন ধেয়ে আসছে। ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে মারা পড়া থেকে বাঁচতে রেল সেতু থেকেই দিলেন ঝাঁপ। এতে দুই পা ভেঙ্গে যাওয়াসহ মাথায় গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত দুলাল!!

বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) গোধূলীলগ্নে ঢাকা-সিলেট-চট্রগ্রাম রেলপথে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পৌর শহরের ভাদুঘর এন্ডারসন খাল (কুরুলিয়া নদী) রেল সেতু এলাকায় ঘটে মর্মান্তিক ঘটনাটি। নিহত বেলায়েত হোসেন দুলাল (৩৫) শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার বাসুদেবপুর গ্রামের হাবিবুর রহমানের পুত্র। তিনি পপুলার লাইফ ইন্সুইরেন্স কোম্পানির, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সার্ভিস সেল ইনচার্জ ছিলেন ও জেলা শহরের কাজীপাড়ার সরকারপাড়ায় পরিবার নিয়ে বসবাস করতেন।

 ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয়রা জানান, লোকটি পৌর এলাকার ভাদুঘর থেকে রেললাইন ধরে পায়ে হেঁটে জেলা শহরের দিকে আসছিলেন। ভাদুঘর থেকে রেলপথে যেতে কুরুলিয়া নদীর উপর রেল সেতু পাড় হচ্ছিলেন। ঠিক ওই সময়েই তার পেছন দিক থেকে আসছিলো ঢাকাগামী একটি ট্রেন। আচমকা ট্রেনের শব্দে পেছনে তাকিয়েই ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে পড়ে। ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে প্রাণপাত হারাবার ভয়ে তিনি সেতুর মাঝের পিলার বরাবর ঝাপ দেন। নিচে পড়ে তার দুই পা ভেঙে যাওয়াসহ মাথায় প্রচন্ড আঘাতপ্রাপ্ত হন। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন বীমা কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন দুলাল। স্থানীয় সূত্রে খবর পেয়ে আখাউড়া রেল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছেন।

আখাউড়া রেলওয়ে থানার পরিদর্শক (ওসি) সাকিউল আযম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ‘মৃত্যুর খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

By khobor

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *