ব্রাহ্মণবাড়িয়া.প্রেস:- ডেস্ক বার্তা রিপোর্ট ।পুলিশকে গুলি করে হত্যা, এ নিয়ে এলাকায় ব্যাপক তোলপাড়!

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আশুগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান, আবু সামার দেহরক্ষী খ্যাত ভানু চন্দ্র দাস (৪৫) নামে এক গ্রাম পুলিশকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

শনিবার সকালে উপজেলার তালশহর ইউনিয়নের (তালশহর-বাহাদুরপুর) সড়কে এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিহত ভানু চন্দ্র দাস তালশহর গ্রামের হরিচন্দ্র দাসের ছেলে। তিনি তালশহর ইউনিয়নে কর্মরত ছিলেন।

পুলিশ জানায় শনিবার সকালে গ্রাম পুলিশ ভানু চন্দ্র দাস চেয়ারম্যান আবু সামার ছেলে, আমির হোসেনের গাড়িতে তেল ভর্তি করার জন্য সরাইল বিশ্বরোড পাম্পের দিকে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে তালশহর-বাহাদুরপুর সড়কে নির্জন স্থানে সিএনজি চালিত একটি অটোরিকশা গাড়িটির গতিরোধ করে। পরে অটোরিকশা থেকে তিন যুবক অস্ত্র হাতে বের হলে গাড়ির চালক দৌড়ে পালিয়ে যান।

এ সময় অস্ত্রধারী যুবকরা গাড়িতে থাকা গ্রাম পুলিশ ভানু চন্দ্র দাসকে গুলি করে সটকে পড়ে । এতে ঘটনাস্থলেই ভানু চন্দ্র দাস মারা যান। পরে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য লাশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

এদিকে পুলিশের একটি সূত্র জানান বর্তমানে, উপজেলার তালশহর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু সামার দেহরক্ষী ছিলেন ও বিভিন্ন অপকর্মের প্রধান সহযোগি। চেয়ারম্যানের কর্মকান্ড নিয়ে সৃষ্ট কোন বিরোধ থেকে তাকে হত্যা করা হতে পারে বলে সূত্রটির ধারনা।

এছাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আবু সামার নেতৃত্বে টাইগার বাহিনী নামে একটি বাহিনী এলাকার নিয়ন্ত্রণ করে বলে একাধিক অভিযোগ রয়েছে। টাইগার বাহিনীর বিষয়টি তালশহরসহ উপজেলার সাধারণ মানুষের নিকটও ব্যাপকভাবে আলোচিত।

এদিকে এই হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটনে পুলিশে একাধিক টিম মাঠে নেমেছে। তাকে কেন হত্যা করা হয়েছে? তাতে পূর্ব বিরোধ কিংবা টাইগার বাহিনী অভন্তরীণ কোন বিরোধ আছে কি না তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

টাইগার বাহিনী প্রধান চেয়ারম্যান আবু সামা এই হত্যাকান্ডের সাথে তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে জড়ানোর চেষ্টা করছেন। মুটোফোনে আবু সামা জানান, আমাকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছিল। আমি গাড়িতে ছিলাম না।ওনার কাছে জানতে চাইলে- এই গাড়িতো আপনার ছেলের, আপনাকে হত্যা করতে এই গাড়ীতে গুলি করবে কেন? কেনইবা আপনাকে হত্যা করতে চায়? বিষয়টি এড়িয়ে, তিনি ফোন কেটে দেন।

এই ঘটনায় সন্দেহজনক, জিজ্ঞাসাদের জন্য গাড়ী চালক শিপনকে আটক করেছে পুলিশ। এছাড়া গাড়ীটিকে ও পুলিশের হেফাজতে রেখেছেন।

এই হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটিত হতে পারে বলে জানিয়েছেন তদন্তকারী কর্মকর্তারা।

By khobor

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *