ব্রাহ্মণবাড়িয়া.প্রেসঃ- ডেস্ক বার্তা। 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আখাউড়া উপজেলায়, ইব্রাহীম খলিলের সেলাই মেশিনের অভাবে কষ্টে জীবন যাপন করছে তার পরিবার।

ফেসবুকে সেলাই মিশিনের অভাবে মানবতার জীবন যাপন নিয়ে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া আখাউড়ার যুবক মোঃ দ্বিন ইসলাম খান। সেই স্ট্যাটাসে ইব্রাহীম খলিলের ‘জীবন যাপনে’  সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার শ্রেষ্ট নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ শামসুজ্জামান। আজ সোমবার দুপুর ১২টায় নতুন সেলাই মেশিন তুলে দেন ইব্রাহীম খলিলের হাতে।      

উক্ত স্ট্যাটাসে লেখা ছিল, আখাউড়া পৌরশহরের বড় বাজার এলাকার ইব্রাহীম খলিল(৪০) একটি সেলাই মেশিনের অভাবে মানবেতর জীবন যাপন করছে। সে বড় বাজার এলাকার উসমান মিয়ার ছেলে। তিনি বড় বাজারের একটি দোকানের সামনে সেলাই মেশিন নিয়ে বসে থাকেন, মানুষের কাপড়-ছেড়া ব্যাগ ইত্যাদি সেলানোর জন্য। তার ব্যবহৃত পুরাতন মেশিনটি নষ্ট হওয়াতে, পরিবারের ভরন-পোষন করতে হিমশিম খাচ্ছেন।

 

এ প্রতিবেদকের সাথে কথা হয় ইব্রাহিম খলিলের।তিনি বলেন, আমি অনেক বছর ধরেই বড় বাজারে এই পুরাতন মেশিননটি দিয়ে আয় রোজগার করে পরিবারের সবার ভরন পোষন করতাম।

আজ সপ্তাহ্ খানেক হলো মেশিনটি অকেজো হয়ে যাওয়ায়, আমার সংসারে অভাবের ছায়া নেমে এসেছে। একটি নতুন সেলাই মেশিন হলে আমি আমার পরিবারের সবাইকে নিয়ে আগের মতো চলতে পারবো।

তিনি সমাজের বৃত্তবানদের কাছে ও দানশীল ব্যক্তি সহ প্রবাসী ভাইদের কাছে এবং উপজেলা প্রশাসনের কাছে বিনীত অনুরোধ করেছেন একটি নতুন সেলাই মেশিনের জন্য।

নতুন সেলাই মেশিন পেয়ে ইব্রাহীম খলিল আনন্দ প্রকাশ করে আল্লাহর নিকট শুকরিয়া আদায় করেন। পাশাপাশি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। 

By khobor

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *