ব্রাহ্মণবাড়িয়া.প্রেস রিপোর্ট।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী ওলামা লীগের কার্যকরী কমিটির সভাপতিকে বহাল রেখেই ভারপ্রাপ্ত সভাপতি পদ লাগিয়ে ভূয়া পদবী ব্যবহারের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী ওলামা লীগের অনুমোদিত কার্যকরী কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা মনিরুজ্জান খান বলেন, জেলা ওলামা লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম টাইটেলবাজঁ মাওলানা ফয়সাল আহমেদ সুলতান নামের এক ভন্ড প্রতারককে জেলা ওলামা লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি লিখে জেলা শহরের বিভিন্নস্থানে ফেস্টুন ছাটিয়েছেন যাহা সম্পূর্ণ  ভূয়া ও গঠনতন্ত্র বিরোধী কাজ।

জেলা ওলামা লীগ সভাপতি মনিরুজ্জামান খান বলেন, আমি কেন্দ্রীয় কমিটির ঘোষিত ও জেলা আওয়ামীলীগের সমর্থিত জেলা কমিটির সভাপতি। ভন্ড মাওলানা নামধারী ফয়সাল আহমেদ সুলতান  জেলা কমিটির কোন পদে না থেকে সে, কিভাবে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নিজেকে দাবী করছেন এ বিষয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি মহোদয়কে বিষয়টি অবগত করিলে তিনি  ভন্ড প্রতারকদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবসা নিতে আমাকে নির্দেশ দেন ।  

জেলা ওলামা লীগ সভাপতি মনিরুজ্জামান খান আরো বলেন, আমার জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম জেলা ওলামা লীগের কমিটিতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির লক্ষে এই অনৈতিক কর্মকান্ড করে আসচ্ছেন। এছাড়াও সে, বিভিন্ন অনৈতিক নেশায় থানা কাচারী গুরে জেলা ওলামা লীগের মানসম্মান নষ্টকরে আসচ্ছেন।

জেলা ওলামা লীগ সভাপতি মনিরুজ্জামান খান বলেন, দলীয় গঠনতন্ত্র বিরোধী কাজে লিপ্ত থাকায় জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে সাংগঠনিকভাবে ব্যবস্থা নিতে ওলামা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকে বিষয়টি অবগত করা হয়েছে। নুরুল ইসলামই ভন্ড মাওলানা নামধারী ফয়সাল আহমেদ সুলতানকে ওলামা লীগের জেলা কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি লিখে ফেস্টুন ছাটাতে সহযোগিতা করেছেন।  এবিষয়ে জানতে জেলা ওলামা লীগের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা নুরুল ইসলামের সাথে তার মুঠোফোনে যোগাযোগ করেও তাকে পাওয়া যায়নি।  

 

By khobor

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *