ব্রাহ্মণবাড়িয়া.প্রেসঃ রিপোর্ট। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নৈশ প্রহরী জয়নাল আবেদীন হত্যা মামলায় আব্দুল মতিন নামের একজনের ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত। অপর আসামী হুমায়ূন মিয়াকে মামলা থেকে খালাস দেওয়া হয়েছে। দ-প্রাপ্ত মতিন সদর উপজেলার ভাটপাড়া গ্রামের আব্দুল হকের ছেলে। বুধবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ শফিউল আজম এই রায় প্রদান করেন। নিহত জয়নাল আবেদীনের পক্ষে আইনজীবী বসির আহমেদ খান জানান, জয়নাল আবেদীন দীর্ঘদিন যাবত স্থানীয় আমতলী বাজারে নৈশপ্রহরী পেশায় নিয়োজিত ছিলেন। ২০১৪ সালের ১৬ জুলাই সদর উপজেলার ভাটপাড়া গ্রামের রাজঘরের আমতলী বাজারে জয়নাল আবেদীনকে হত্যা করা হয়। এই ঘটনায় পরদিন নিহতের স্ত্রী মোছাঃ শাহানা বেগম বাদি হয়ে সদর মডেল থানায় আব্দুল মতিনকে আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে আব্দুল মতিন কে আটকের পর আদালতে ১৬৪ জবানবন্দিতে হুমায়ূন মিয়া নামের আরেকজনের নাম বেড়িয়ে আসে। পরবর্তীতে পুলিশ মতিন ও হুমায়ূনের নামে চার্জশীট আদালতে দাখিল করে। বুধবার এই মামলার রায়ে আদালত আব্দুল মতিনকে ফাঁসি ও হুমায়ূন মিয়াকে খালাস প্রদান করে আদেশ দিয়েছেন। এই রায়ে আমরা খুশি না। আমরা দুই আসামীর ফাঁসি প্রত্যাশা করেছিলাম। রায়ের বিরুদ্ধে আমরা উচ্চ আদালতে যাব। আসামী পক্ষের আইনজীবী মোবারক উল্লাহ জানান, ১৬৪ ধারা জবানবন্দীর উপর ভিত্তি করে এই রায় দিয়েছে। আমরা এই রায়ে সংক্ষুব্ধ, রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করা হবে।

By khobor

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *