ব্রাহ্মণবাড়িয়া.প্রেস রিপোর্ট । মোহাম্মদপুর গ্রামে হাজী বাড়িতে মুস্তাফিজুর রহমান ভুঁইয়া ফেরদৌসের নিজ জায়গায়, মুরগির খামার করিয়া দীর্ঘ ৭ বৎসর যাবৎ ব্যবসা করি আসিতেছে।সেই খামারের পাকা ভিঠি ও ভেড়া ভাঙ্গিয়া, পায়খানার ড্রেইন নির্মানে গ্রামের লাঠিয়াল বাহিনী গভীর রাতে ড্রেইন নির্মাণ করে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার এক অভিযোগের ভিত্তিতে জানা যায়, বিগত ২৯ মে ২০২০ইং তারিখে বিবাদীগণ গভীর রাতে সাংবাদিক মুস্তাফিজুর রহমানের খালি জায়গায় ড্রেন নির্মাণ করে। গ্রামের সাহেব সর্দার তাহাদেরকে বাধা প্রদান করিলে, বিবাদীগণ তাদের উপর ক্ষিপ্ত হয় এবং বলেন সাংবাদিক, শহর থেকে গ্রামে এলে- তাহাকেও খুন জখম করিব বলিয়া হুমকি প্রদান করে। ২৯ মে ২০২০ইং থানায় অভিযোগ দেওয়ায় এ খবর পেয়ে আসামীগন, গতরাতে ৩ঘটিকা হইতে সকাল পর্যন্ত, বিবাদীগণ বাদীর খামার ঘরের বেড়া ভাঙ্গিয়া পাকা ভিঠি ভাঙ্গিয়া পায়খানার ড্রেন নির্মাণ করে।

রাতের তাণ্ডবের কথা পরদিন, তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই শফিককে অবগত করিলে তিনি ৩০মে ২০২০ইং বিকাল ৩.৩০ মিনিটে তদন্তের স্থানে পৌঁছেন। বিবাদীগণের তান্ডবের ঘটনা সরেজমিনে তদন্ত করে দেখে এবং ভিডিও করে নিয়ে আসে। বিবাদীদেরকে বাড়িতে না পাইয়া মহিলাদেরকে বলে আসে থানায় আসার জন্য।

৩মে ২০২০ইং বুধবার বিকাল ৪ ঘটিকায় বাদী-বিবাদী উভয় পক্ষ থানার আসে এবং উভয় পক্ষের জবানবন্দি শুনীয়া, এস.আই শফিক বিবাদীদেরকে বলিয়া দেয়- ড্রেইন কাঠার স্তানে যেন কোন প্রকার পাইপ অথবা কোন কর্ম করা যাবেনা। আপনারা বিবাদীগণ মহামান্য আদালতের দারস্থ হয়ে জায়গার মালিকানার রায় নিয়ে আসেন বলে জানান।

By khobor

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *