ব্রাহ্মণবাড়িয়া.প্রেস:- মো. আজহার উদ্দিন।ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে ৫তলা ভবন থেকে পড়ে যাওয়া মুন্নি আক্তার (১১) নামের শিশুটি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গুরুত্ব আহত শিশুটি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছে।বুধবার ৯ই সেপ্টেম্বর বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সরাইল থানার অরুয়াইল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) বাপন চক্রবর্তী।

নিহত মুন্নি আক্তার অরুয়াইল ইউনিয়নের ধামাউড়া গ্রামের কামরুল ইসলামের মেয়ে। কামরুল ইসলাম পেশায় একজন স্পীড বোর্ড চালক। মুন্নী বর্তমানে পরিবারের সাথে অরুয়াইল বাজার এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত মঙ্গলবার(৮ই সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় পাশের হাকিম মিয়ার ৫তলা ভবন থেকে পড়ে যায় মুন্নী। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে প্রথমে ২৫০শয্যা বিশিষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছিল। ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থার মধ্য রাতে মুন্নী মারা যায়।

তবে কি কারণে বা কিভাবে শিশু মুন্নী ৫তলা থেকে পড়ে গিয়েছে, তার রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে।এই ঘটনায় জনমনে মিশ্রপ্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

অরুয়াইল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) বাপন চক্রবর্তী বলেন, খবর পেয়েছি শিশুটি চিকিৎসাধীন অবস্থা মারা গেছে। তার পরিবারের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ নেই। অভিযোগ দিলে আমরা আইনত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

By khobor

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *