ব্রাহ্মণবাড়িয়া.প্রেস রিপোর্ট।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পৌর শহরের গোর্কনঘাট উত্তর পাড়া এলাকায় মামলা মোকাদ্দমা সংক্রান্ত পূর্ব শত্রুতার জেরধরে আগাম জামিনে মুক্ত হয়ে বাদী পক্ষের বাড়ীতে প্রবেশ করে  সন্ত্রাসী কায়দায় হামলা চালিয়ে ৬ জনকে আহত করেছেন আসামী পক্ষের লোকজনরা। জানাযায়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর শহরের গোর্কণঘাট উত্তর পাড়া এলাকার মৃত মস্তু মিয়ার ছেলে হামদু মিয়া(৫৫) গংদের সাথে একই এলাকার মৃত সামাদ মোল্লার ছেলে মোস্তাক আহমেদ (৪৫) গংদের দীর্ঘদিন ধরে জায়গা জমি সংক্রান্ত পারিবারিক বিরোধ চলে আসচ্ছেন।

খোঁজ নিয়ে জানাযায়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর শহরের গোর্কণঘাট উত্তর পাড়া এলাকার মৃত সামাদ মোল্লার ছেলে মোস্তাক আহমেদ বাদী হয়ে গত ২৮/৮/২০১৭ইং তারিখে একই এলাকার মস্তু মিয়ার ছেলে হামদু মিয়া গংদের বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।  উক্ত মামলার আসামী হামদু মিয়া গংরা গত কয়েকদিন আগে আদালত থেকে  আগাম জামিন নিয়ে কয়েকদিন ধরেই বাদী পক্ষকে মামলা তুলে নিতে হুমকী দিয়ে আসচ্ছেন।

এরই জেরধরে গত মঙ্গলবার সকাল ৭ ঘটিকার সময় ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর শহরের গোর্কণ ঘাট উত্তর পাড়া এলাকায় মামলার আসামী হামদু মিয়ার নেতৃত্বে ৬/৭ জন দাঙ্গাবাজ দেশীয় অস্ত্রাধী নিয়ে মামলার বাদী মোস্তাক আহমেদের বাড়ীতে প্রবেশ করে বাড়ীর লোকজনের উপর এলোপাতাড়ী হামলা চালায় বলে ভোক্তভোগীদের কাছ থেকে অভিযোগ পাওয়া গেছে। হামলায় বাদী মোস্তাক আহমেদসহ ৬জন আহত হন। আহতরা হলেন, নবম শ্রেনীর স্কুল ছাত্র আসিফ আহমেদ (১৭) স্কুল ছাত্র সিয়াম (১৩) মামলার বাদী মোস্তাক আহমেদ, বাড়ীর বাসিন্দা ইসহাক মোল্লা (৪৭) ইমরান হোসেন (১৫) আবু তাহের (৪৫)।  আহতদের ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে প্রার্থমিকভাবে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

এ ঘটনায় গোর্কণঘাট উত্তর পাড়া এলাকার মৃত সামাদ মোল্লার ছেলে মোস্তাক আহমেদ বাদী হয়ে গতকাল ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় আরো একটি এজাহার  দায়ের করেন। ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার সেকেন্ড অফিসার ইশতিয়াক আহমেদ বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে আসামীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই আবু সাঈদ জানান, উভয় পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসচ্ছেন। সেই বিরোধের জেরধরে এই ঘটনা ঘটতে পারে। তবে তদন্ত করে আসামীদের বিরুদ্ধে  দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।   স্থানীয় গোর্কণঘাট উত্তর পাড়া এলাকার প্রতক্ষ্যদর্শী এলাকাবাসীরা জানান, মোস্তাক ও হামদু মিয়ার মধ্যে দীর্ঘদিন ধরেই মামলা মোকাদ্দমাসহ বিরোধ চলে  আসচ্ছেন। এরই জেরধরে এই ঘটনা ঘটেছে। তবে  এই ঘটনায় গুরুত্বরভাবে কেও হতাহত হয়নী।

By khobor

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *