ব্রাহ্মণবাড়িয়া.প্রেস বিশেষ প্রতিবেদন।।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর ও বিজয়নগরে জাতীয় পাটিকে ব্যপকভাবে তৃর্ণমূল থেকে সু-সংগঠিত করতে মাঠে নেমেছেন জাতীয় পাটির কেন্দ্রীয় নেতা জামাল রানা। আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংসদীয় আসন ২৪৫ ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর ৩ বিজয় নগরে জাতীয় পাটির তৃর্ণমূলের নেতাকর্মীদের মাঝে যেন, সুর এখন এই জামাল রানার।

আওয়ামীলীগের দখলে থাকা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সদর আসন এলাকায় জাতীয় পাটির কোন প্রকার কোন অস্থিত্ব না থাকলেও,  জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর ৩ বিজয় নগর আংশিক এই আসনের বিগতদিনে জাতীয় পাটির পরিচিত মুখ হিসেবে পরিচিত জাতীয় পাটির চেয়ারম্যান হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদের উপদেষ্টা এডভোকেট রেজাউল ইসলাম ভূইয়া এই আসনে এককভাবে জাতীয় পাটির মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে জাতীয় পাটির নেতাকর্মীদের মাঝেঁ পরিচিত থাকলেও সাংগঠনিকভাবে জাতীয় পাটিকে তৃর্ণমূলে প্রচার প্রচারনায় ব্যপকভাবে পৌছে দিতে জুরালো কোন ভূমিকায় নামতে দেখা যায়নি রেজাউলকে ।

সাম্প্রতিককালে জাতীয় পাটির মনোনয়ন প্রত্যাশী হয়ে এই আসনে ব্যপকভাবে প্রচার প্রচারনা ও দলীয় নেতাকর্মী ও জনগণের সাথে সার্বিক যোগাযোগ রেখে গণসংযোগে  জাতীয় পাটিকে তৃর্ণমূলের কাছে ঘরে ঘরে  এর লাঙ্গল প্রতীককে  পৌছে দিতে  মাঠে নেমেছেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সদর উপজেলার বাসুদেব ইউপি এলাকার কড্ডা গ্রামের কৃতি সন্তান, জাতীয় পাটির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-সাংগঠনিক সম্পাদক ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ জাতীয় পাটির সহ-সভাপতি শাহ্ মোঃ জামাল রানা ।

দলীয়ভাবে সাংগঠনিক অবকাঠামো দিয়ে জাতীয় পাটির অস্থিত্বহীন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর ৩ বিজয় নগরের আংশিক এই আসনে বিগতদিনে চোখেঁ পড়ার মত জাতীয় পাটির তেমন কোন প্রচার প্রচারনা না থাকলেও,  সাম্প্রতিককালে জাতীয় পাটির কেন্দ্রীয় কমিটির এই নেতা শাহ্ মোঃ জামাল রানার বিলবোর্ড ও ফেস্টুনে যেন, ছোয়ে গেছে  ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর ৩ বিজয় নগর আংশিক এই আসনের পুরো নির্বাচনী এলাকা।

জাতীয় পাটির কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা শাহ্ মোঃ জামাল রানার সমর্থক ভক্ত অনুসারী জাতীয় পাটির একাংশের নেতাকর্মীরা এই প্রতিবেদককে জানান, দলের চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদের নির্দেশেই আমাদের নেতা শাহ্ জামাল রানা জাতীয় পাটিকে তৃর্ণমূল থেকে সু-সংগঠিত করার লক্ষে নির্বাচনী মাঠে নেমেছেন। তিনি ইতিমধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর ৩ বিজয় নগর আংশিক এই আসনের পুরো নির্বাচনী এলাকায় প্রতিনিয়তই  গণ-সংযোগ চালিয়ে বিভিন্ন সভা সমাবেশ করে জনগণের সাথে যোগাযোগ রেখে জাতীয় পাটিকে তৃর্ণমূল থেকে সু-সংগঠিত করার লক্ষে লাঙ্গল মার্কাকে প্রতিটি ঘরে ঘরে পৌছে দিতেও তিনি, কাজ করছেন।

শাহ্ মোঃ জামাল রানার অনুসারী ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা, উপজেলা , বিজয় নগর জাতীয় পাটির একাংশের নেতাকর্মীরা আরো জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর ৩ ও বিজয়নগরের প্রত্যেক  এলাকায় জামাল রানা এখন জাতীয় পাটির পরিচিত মুখ। তিনি রাজনীতে এসেছেন জনগণের সেবা করতে। মন্ত্রী, এমপি হবার লোভে নয়। তিনি জাতীয় পাটিকে ভালবাসেন বিধায় জাতীয় পাটির চেয়ারম্যান হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদের নির্দেশে লাঙ্গল মার্কাকে জনগণের দরজায় পৌছে দিতে কাজ করছেন।

অপরদিকে  ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর ৩ বিজয়নগর ২৪৫ জাতীয় সংসদের সংসদীয় এই আসনের দুই দুইবারের সাংসদ, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাবেক একান্ত সচিব,বর্তমান সাংসদ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী কমিটির অন্যতম সদস্য, যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এই জনপথে জনগণের কল্যাণে দীর্ঘবছর ধরে ব্যপক উন্নয়ন ঘটিয়ে  জনপ্রিয়তার একটি  বিশাল ঘাটি বেধেঁ রেখেছেন।

By khobor

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *