ব্রাহ্মণবাড়িয়া.প্রতিনিধিঃ নিজস্ব প্রতিবেদক ।

ব্রাহ্মণাবাড়িয়ায় পুলিশের ব্যারাক থেকে এক নারী কনস্টেবলের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় চার সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। পুলিশ জানায়, পুলিশ সুপার কার্যালয়ের উইমেন্স সাপোর্ট সেন্টারে কর্মরত নারী কনস্টেবল তাসলিমা আক্তার ব্যারাকের একটি কক্ষে থাকতেন। তার কক্ষের দরজা ভেতর থেকে বন্ধ থাকায় বৃহস্পতিবার দুপুরে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানান সহকর্মীরা। পরে সদর থানা পুলিশ দরজা ভেঙ্গে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। তবে, এটি হত্যা না আত্মহত্যা তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানাতে পারেনি পুলিশ।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোসেন জানান, সকালে তাসলিমার ডিউটিতে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সে ডিউটিতে যায়নি। ব্যারাকে তার সহকর্মীরা ডিউটিতে চলে গেলে দুপুর ১২টায় ব্যারাকের ফ্যানের সাথে ফাঁস দিয়ে সে আত্মহত্যা করে। একজন নারী কনস্টেবল তার ঝুলন্ত মরদেহ দেখে অন্যদের জানালে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা এসে মরদেহ উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. আশরাফুল হক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরো জানান, ছয় মাস পূর্বে এনজিও কর্মী মো. ওয়াসিম মিয়ার সাথে তার বিয়ে হয়। দাম্পত্য কলহ নাকি অন্য কোন কারনে তাসলিমার আত্মহত্যার পথ বেঁছে নিয়েছিল তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

By khobor

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *